রবিবার, ১লা নভেম্বর, ২০২০ ইং, ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল), ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী |আর্কাইভ|
মুখরিত কমলাপুর স্টেশন
আগস্ট ১৬, ২০২০

১৬ আগস্ট ২০২০

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক: যাত্রীদের পদচারণায় আবার প্রাণ ফিরে পেয়েছে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন। আজ রোববার (১৬ আগস্ট) সকালে নতুন করে ১৩ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল শুরু করার পর বিকেলে স্টেশনের চেহারা বদলে যায়। যাত্রীরা বলছেন, ট্রেনে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই সবাই চলাচল করছেন। এছাড়া ট্রেনও সময়মতো চলাচল করছে। এছাড়া ট্রেনের ভাড়া না বাড়ায় যাত্রীদের মধ্যে স্বস্তি দেখা দিয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ২৪ মার্চ থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এরপর কমলাপুর রেলস্টেশন ছিল প্রায় জনশূন্য।

চট্টগ্রাম থেকে আসা দুজন যাত্রী আইডিয়াল নিউজকে বলেন, ট্রেনে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে। এছাড়া ট্রেনও সময়মতো এসেছে। করোনাকালে মালবাহী ট্রেন চলাচল অব্যাহত ছিল। গত ৩১ মে প্রথম দফায় আট জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চালু হয়। ৩ জুন দ্বিতীয় দফায় আরও ১১ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন বাড়ানো হয়। তবে কিছুদিন পর যাত্রী সংকটে দুই জোড়া ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এরই ধারাবাহিকতায় নতুন করে আরও ১২ জোড়া আন্তঃনগর ও এক জোড়া কমিউটার ট্রেনসহ মোট ১৩ জোড়া ট্রেন নতুন করে চলাচল শুরু করেছে আজ রোববার থেকে। পর্যায়ক্রমে সব রুটের যাত্রীবাহী আন্তঃনগর ট্রেন চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে।

রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট আগের মতো অনলাইনে ও মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে বিক্রি করা হবে। যাত্রার দিনসহ পাঁচ দিন আগে আন্তঃনগর ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ইস্যু করা যাবে। যাত্রীদের সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কোচের ধারণক্ষমতার শতকরা ৫০ ভাগ টিকিট বিক্রি করা হবে। আন্তঃনগর ট্রেনে সকল প্রকার স্ট্যান্ডিং টিকিট বিক্রি বন্ধ থাকবে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্র জানায়, বর্তমানের মোট ১৭ জোড়া ট্রেন চলাচল করছে। আজ রেলের বহরে যুক্ত হলো আরও ১৩ জোড়া ট্রেন। সব মিলিয়ে এখন চলাচল করা ট্রেনের সংখ্যা দাঁড়াল ৩০ জোড়ায়।